Jump to content
Please ensure regular participation (posting/engagement) to maintain your account. ×

Forums

  1. Bangladesh Military & Defence

    1. Bangladesh Strategic & International Affairs

      Discussions related to Bangladesh's strategic affairs and international relations including geo-politics, diplomatic and national security.

      348
      posts
    2. Bangladesh Army

      Discussions related to Bangladesh Army - Its combat capability, procurement programmes, weapons systems, manpower and future planning.

      258
      posts
    3. Bangladesh Air Force

      Discussions related to Bangladesh Air Force - Its combat capability, procurement programmes, aircraft, weapons systems, manpower and future planning.

      864
      posts
    4. Bangladesh Navy

      Discussions related to Bangladesh Navy - Its combat capability, procurement programmes, naval platforms, weapons systems, manpower and future planning.

      338
      posts
    5. Bangladesh Internal Security Forces

      Discussions related to Bangladesh's internal security forces including border guard, coast guard, law enforcement agencies and domestic intelligence - Its mission capabilities, procurement programmes, weapons systems, manpower and future planning.

      145
      posts
    6. Bangladesh Defence Industries

      Discussions related to Bangladesh's defence industries such as aerospace, naval shipbuilding, armaments and munitions factories - Its mission capabilities, products, innovation programmes, technologies and future.

      56
      posts
  2. Civil Affairs

    1. Economy & Development Affairs

      Discussions related to Bangladesh's economic and national development affairs including mega infrastructure development projects, national budget, investment, banking and trade.

      245
      posts
    2. Civil Aviation

      Discussions related to Bangladesh and global civil aviation including commercial airlines, aircraft, technologies, flight safety and civil aviation security.

      87
      posts
    3. Maritime & Shipbuilding

      Discussions related to Bangladesh's Maritime & Shipbuilding sector including ports, shipyards, marine biology, maritime safety and security.

      36
      posts
    4. Social & Current Affairs

      Discussions related to social and current affairs including politics, social, health, education, sports related issues.

      94
      posts
  3. International Defence & Strategic Affairs

    1. Global Defence Industry & Technology

      Discussions related to emerging global defence technologies, industry products and services.

      75
      posts
    2. South Asian Defence Forum

      Discussions related to India, Pakistan, Afghanistan, Sri Lanka, Maldives, Bhutan, and Nepal's defence and strategic affairs.

      96
      posts
    3. Myanmar Defence Forum

      Discussions related to Myanmar's defence and strategic affairs.

      116
      posts
    4. China Defence Forum

      Discussions related to China's defence and strategic affairs.

      27
      posts
    5. Islamic World's Defence Forum

      Discussions related to defence and strategic affairs of Muslim countries including Turkey, Saudi Arabia, Iran, Indonesia, Malaysia, Nigeria and others.

      34
      posts
  4. DEFSECA Headquarters

    1. DEFSECA Membership Centre

      Discussions related to DEFSECA website, forum or social media functions.

      183
      posts


  • Posts

    • অগ্নিগর্ভ আরাকান নিয়ে নতুন উদ্বেগ আলতাফ পারভেজ প্রকাশ: ২১ অক্টোবর ২০২০, ১৪:৫৩   আগামী ৮ নভেম্বর মিয়ানমারে জাতীয় নির্বাচন। এটি সে দেশে বেসামরিক সরকারের অধীনে প্রথম জাতীয় নির্বাচন। কিন্তু দেশটির বাংলাদেশ-সংলগ্ন রাখাইন প্রদেশে নির্বাচনী উত্তাপ নেই; বরং মানুষ যে যেদিকে পারছে, পালাচ্ছে। রাস্তায় বোমা ফাটছে; আকাশে উড়ছে সরকারি ড্রোন। পুরো প্রদেশ সন্ত্রস্ত। বাংলাদেশে রাখাইন প্রদেশ আরাকান নামে বেশি পরিচিত। সেই আরাকানে এখন যারা পালাচ্ছে, তারা বৌদ্ধ রাখাইন। স্থানীয় মুসলমান রোহিঙ্গাদের বড় অংশ তিন বছর আগেই গণহত্যার মুখে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। তাই পুরো প্রদেশই ক্রমে খালি হয়ে যাচ্ছে। থাকছে কেবল দুটো সশস্ত্র পক্ষ—মিয়ানমারের সেনাবাহিনী এবং স্থানীয় প্রতিরোধ যোদ্ধাদল ‘আরাকান আর্মি’। মিয়ানমারের বড় কূটনৈতিক সফলতা হলো চীন, ভারত, জাপানসহ এশিয়ার সব প্রভাবশালী রাষ্ট্রকে তারা আরাকানে মানবাধিকার দলনের বিষয়ে নীরব রাখতে পারছে। বাংলাদেশের সামনে তাই আরাকান একই সঙ্গে এক সামরিক ও কূটনৈতিক চ্যালেঞ্জ আরাকান আর্মির সঙ্গে পারছে না ‘টাটমা-ড’ মিয়ানমারের সশস্ত্র বাহিনী ‘টাটমা-ড’ নামে পরিচিত। টাটমা-ড দেশটির সবচেয়ে শক্তিশালী ও সুবিধাভোগী প্রতিষ্ঠান। মন্ত্রিসভায়ও তাদের তিনজন প্রতিনিধি থাকেন। পাঁচ লাখ সদস্যের বিশাল জনবল তার। গেরিলাযুদ্ধ মোকাবিলায় টাটমা-ডর বিশেষ সুনাম আছে। গত ৭২ বছর বিশ্বখ্যাত অনেক গেরিলা বাহিনীর স্বাধিকারের সংগ্রাম ঠেকিয়ে তারা ‘ইউনিয়ন-মিয়ানমার’-এর অখণ্ডতা রক্ষা করে চলেছে। কিন্তু আরাকানে তারা নবীন আরাকান আর্মির সঙ্গে কুলিয়ে উঠতে পারছে না। ইমেজ বাঁচাতে টাটমা-ডর জেনারেলরা আরাকানে চালাচ্ছে পোড়ামাটি নীতি। ২০১৭ সালে তারা রোহিঙ্গা গ্রামগুলো ছারখার করেছিল। এখন পুড়ছে রাখাইনদের বাড়িঘর। গত সপ্তাহে রাথিডং এলাকায় সেনা ও নৌবাহিনীর যৌথ অভিযানকালে বিমানবাহিনীও ব্যাপক গোলাবর্ষণ করে। এত দিন এ রকম আক্রমণে কেবল হেলিকপ্টার বহর অংশ নিত। আরাকানের আকাশে যত্রতত্র দেখা যাচ্ছে ধোঁয়ার কুণ্ডলী। আরাকান আর্মি কারা মিয়ানমারে গেরিলা গ্রুপের কমতি নেই। কোনো কোনোটির বয়স ৫০-৬০ বছর। সেই তুলনায় আরাকান আর্মি অতি নবীন। ২০০৯ সাল থেকে এই সংগঠনের নাম শোনা যেতে থাকে। আরাকানকে বর্মীদের দখলমুক্ত করাই তাদের লক্ষ্য। স্বঘোষিত জেনারেল থন মাট নইঙ এর নেতৃত্ব দিচ্ছেন। বলা হয়, আরাকান আর্মি ইউনাইটেড আরাকান লিগের সশস্ত্র শাখা, যারা হৃদয়ে লালন করে অতীতের স্বাধীন আরাকানের ইতিহাস। তবে বর্তমান যুদ্ধের তাৎক্ষণিক সামরিক কারণ, প্রদেশের উত্তরাঞ্চলে আরাকান আর্মির ঘাঁটি এলাকা গড়তে চাওয়া। এ রকম দুর্ভেদ্য সামরিক উপস্থিতির মাধ্যমে কাচিন, কারেন ও শানরা ইউনিয়ন মিয়ানমারে থেকেও নিজ নিজ এলাকায় নিজস্ব বেসামরিক প্রশাসন পরিচালনা করছে। ঠিক ও রকম লক্ষ্য নিয়ে আরাকান আর্মির গেরিলারা দলে দলে আরাকানে ঢুকছে। চিন প্রদেশের যে পালিতোয়া এলাকা দিয়ে তারা আরাকানে ঢুকছে, সেটা বাংলাদেশের বান্দরবান-সংলগ্ন। বান্দরবান থেকে মাত্র ১৮ কিলোমিটার দূরে পাহাড়ি পালিতোয়া শহর। এ এলাকাই এখন যুদ্ধের মূল উত্তাপকেন্দ্র। তবে আরাকান আর্মির গেরিলারা উত্তর আরাকানের প্রায় প্রতিটি গ্রামে হাজির আছে এখন। ফলে মিয়ানমারের ইতিহাস নতুন করে আরেক চিরায়ত গেরিলাযুদ্ধ দেখছে। আরাকানে সশস্ত্র বাহিনীর পাশে সু চির দল আরাকান যুদ্ধের প্রধান এক শিকার এই মুহূর্তের নির্বাচন। ১৯৯০-এর আগে-পরে আরাকানের রোহিঙ্গা ও রাখাইন—উভয় সম্প্রদায় সেনা শাসনের বিরুদ্ধে সু চির দল ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসির সমর্থক ছিল। কিন্তু ক্ষমতায় আসার পর রোহিঙ্গাবিরোধী সেনা অভিযানে যেমন এনএলডি সরকার চুপচাপ ছিল, এখন রাখাইনবিরোধী অভিযানকালেও অনুরূপ ভূমিকায়। উপরন্তু যুদ্ধের সুযোগ নিয়ে সু চি চাইছেন আরাকান থেকে স্থানীয় রাজনৈতিক দল ‘আরাকান ন্যাশনাল পার্টি’কে দুর্বল করে প্রদেশজুড়ে তাঁর দলকে একচেটিয়া করতে। ইতিমধ্যে মহামারির কথা বলে আরাকানের অনেক জায়গায় নির্বাচন হবে না বলে দেওয়া হয়েছে। এতে আরাকানের প্রায় ১২ লাখ রাখাইন এবার ভোট দিতে পারবেন না। মূলত আরাকান ন্যাশনাল পার্টিকে ঠেকাতে এই আয়োজন। কারণ, এই দলকে আরাকান আর্মির প্রতি সহানুভূতিশীল বলে মনে করা হয়। অর্থাৎ টাটমা-ড যখন আরাকান আর্মির ওপর বোমা ফেলছে, এনএলডি তখন সেখানকার রাজনৈতিক নেতৃত্বকে অকার্যকর করার চেষ্টা করছে। পাল্টা হিসেবে আরাকান আর্মিও এনএলডির কয়েকজন প্রার্থীকে অপহরণ করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বাংলাদেশের জন্য পরিস্থিতি উদ্বেগের বাংলাদেশের জন্য এই অবস্থা ভূরাজনীতির দিক থেকে উদ্বেগজনক ও গভীরভাবে তাৎপর্যময়। মিয়ানমারের সঙ্গে বাংলাদেশের সীমান্ত বেশি বড় নয়, ২০০ মাইলের কম। কিন্তু অশান্ত আরাকান বাংলাদেশের স্বস্তি কেড়ে নেওয়ার জন্য যথেষ্ট। এটা সত্য যে আরাকান এখনই আরাকান আর্মির পূর্ণ দখলে যাচ্ছে না। কিন্তু ক্রমে মাঠের পরিস্থিতি তাদের নিয়ন্ত্রণে যাচ্ছে। স্থানীয় রাখাইনরা ইতিমধ্যে তাদের নীরব কর্মী হিসেবে কাজ করছে। পাশাপাশি টাটমা-ডর আক্রমণও বাড়ছে এবং আরও বাড়বে। রাখাইনদের বাংলাদেশে শরণার্থী হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। ইতিমধ্যে বাংলাদেশের রাখাইনরা আরাকানে মানবাধিকার দলনের প্রতি দৃষ্টি কাড়তে ঢাকায় বড় ধরনের বিক্ষোভ সমাবেশও করেছে। দ্বিতীয়ত, আরাকানে টাটমা-ডর নিয়ন্ত্রণ কমতে থাকলে রোহিঙ্গাদের সঙ্গে রাখাইনদের আন্তসম্পর্ক কেমন দাঁড়ায়, তার ওপরও নির্ভর করবে রোহিঙ্গাদের বাড়ি ফেরার বিষয়টি। এই উভয় সম্প্রদায়ের ভেতর ক্ষুদ্র অনেক উগ্রবাদী ধারা রয়েছে, যারা পারস্পরিক সংঘাতে লিপ্ত হতে পারে। এ রকম অস্থিতিশীলতা এই অঞ্চল দিয়ে মাদকের চোরাকারবার বাড়িয়ে দিতে পারে। যে সমস্যায় বাংলাদেশ ইতিমধ্যে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত। তৃতীয়ত, আরাকান যুদ্ধে নিজেদের সামরিক ব্যর্থতা আড়াল করতে মিয়ানমার রাখাইন গেরিলাদের পেছনে বাংলাদেশের মদদ আবিষ্কার করতে পারে। ইতিমধ্যে দেশে-বিদেশে এ রকম প্রচারণা শুরু করেছে তারা। বঙ্গোপসাগরে অস্থিতিশীলতা বাড়াতে পারে টাটমা-ডর বহুমাত্রিক প্রচারণা সত্ত্বেও বিশ্বসমাজ আরাকানের ঘটনাবলি পুরোপুরি অবহিত বলেই মনে হচ্ছে। সেখানে টাটমা-ডর পোড়ামাটি নীতির বিরুদ্ধে জাতিসংঘের বিভিন্ন সংস্থা প্রায়ই উদ্বেগ প্রকাশ করছে। তবে মিয়ানমারের বড় কূটনৈতিক সফলতা হলো চীন, ভারত, জাপানসহ এশিয়ার সব প্রভাবশালী রাষ্ট্রকে তারা আরাকানে মানবাধিকার দলনের বিষয়ে নীরব রাখতে পারছে। বাংলাদেশের সামনে তাই আরাকান একই সঙ্গে এক সামরিক ও কূটনৈতিক চ্যালেঞ্জ। টাটমা-ড সম্প্রতি উসকানিমূলক তৎপরতা হিসেবে সীমান্তে সৈন্য সংখ্যাও বাড়াচ্ছে। বিজিপি নামে পরিচিত রাখাইন প্রদেশের সীমান্ত পুলিশের তিনটি নতুন ব্যাটালিয়নও গড়ছে তারা। যেসব সামরিক অফিসারকে সেনাবাহিনী থেকে সীমান্ত পুলিশে পাঠানো হচ্ছে, তারা মাঠপর্যায়ের অভিযানে বিশেষ দক্ষ হিসেবে বিবেচিত। এসবই বাংলাদেশের জন্য বাজে ইঙ্গিত। এভাবে টাটমা-ড ও সু চির দল এনএলডির দ্বিমুখী রাজনৈতিক ও সামরিক যৌথ অভিযানে বাংলাদেশের পাশে নতুন যে অগ্নিগর্ভ আরাকান তৈরি হচ্ছে, তা বঙ্গোপসাগরের এই অঞ্চলজুড়ে বাড়তি অস্থিতিশীলতার ইঙ্গিতবহ। আলতাফ পারভেজ: দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার ইতিহাস বিষয়ের গবেষক https://www.prothomalo.com/opinion/column/অগ্নিগর্ভ-আরাকান-নিয়ে-নতুন-উদ্বেগ
    • 12:00 AM, October 21, 2020 / LAST MODIFIED: 02:11 AM, October 21, 2020 Dream coming true bit by bit Key machines for long cherished Rooppur power plant arrive in Mongla Rejaul Karim Byron and Wasim Bin Habib A nuclear reactor and a steam generator, the key components of the first unit of Rooppur Nuclear Power Plant, arrived in Bangladesh yesterday, paving the way for completing the main phase of the mega project. Traversing 14,000km, a ship carrying the equipment reached Mongla Sea Port in Khulna from Russia around 4:00pm yesterday. The components weigh 673.6 tonnes, said project officials. "The arrival marks a major milestone in the construction of our dream project with a total capacity of 2,400MW," Md Shawkat Akbar, project director of the nuclear power plant construction project, told The Daily Star. The ship carrying the VVER-1200 reactor pressure vessel and the steam generator left for Bangladesh on August 20. The components were manufactured at the "Atommash" plant in Volgodonsk, the largest nuclear engineering production site in Russia. The reactor vessel weighs 333.6 tonnes and the steam generator 340 tonnes. Now, these will be first shifted to a special barge for transportation to the Rooppur construction site in Pabna's Ishwardi upazila, about 160 kilometres northwest of the capital. Those will then be sent through rivers from Mongla via Kawkhali, Barisal, Chandpur, Mawa and Rajbari to the newly constructed Rooppur river port near the power plant site. The special barge carrying the components is expected to leave Mongla port on November 5 and reach Rooppur river port on November 21, according to a press release by the science and technology ministry. In easy terms, a nuclear reactor is a device in which nuclear chain reactions are initiated, controlled and sustained at a steady rate. The life cycle of a reactor is 60 years with the possibility of further extension, according to Russia's State Atomic Energy Corporation, Rosatom. Each reactor unit comprises a reactor and four circulation loops, with each loop having circulation pipelines, a reactor coolant pump and horizontal steam generator. Amid growing demand for electricity, the government moved to build the country's first-ever nuclear power plant in Pabna and gave Rosatom the task of implementing it. The government put this ambitious mega project on the list of 10 top priority projects or fast-track projects for completing it on time. The power plant will have two units -- Rooppur Unit-1 and Unit-2 -- with a power generation capacity of 1,200MW each. A third-generation technology is being used to construct the plant with a five-layer security system. The first unit is expected to go into commercial operation by 2023 and the second one by 2024. The foundation stone of the Tk 113,092-crore power plant was laid in October 2013 and construction began on 1,062 acres of land in November 2017. Project officials said that as of August this year, the project saw 37 percent progress and there will be a major leap in its implementation once the reactor is installed. "The real progress will be visible from January next year," said a project official seeking anonymity. Md Shawkat Akbar said, "The reactor for the second unit will arrive in the country soon." The work of loading uranium fuel to the first reactor will begin in February, 2023, he mentioned. The project director said they expect to supply power to the national grid from April 2023 on a test basis, and that there will be a test run for a year. Project officials said the containment walls of the first reactor building have already been built, and construction of the second building will be completed by next year. The reactor support truss in Unit-1 has already been installed. The purpose of the support truss is to fasten the reactor vessel and to bear its weight loads. Besides, the work of manufacturing other machinery and equipment for the plant is going on in full swing, mentioned the officials. They said the government plans to meet 9 percent of the country's electricity requirement from nuclear power. It also seeks to reduce dependence on fossil fuels by the middle of the next decade when both reactors of the new power plant will be in operation. With the first nuclear power plant at Rooppur, Bangladesh will become the third Asian country -- after India and Pakistan -- to harness the power of atoms. Nuclear power plants built with VVER-1200 reactors are characterised by an unprecedented level of safety, which allows them to be classified as generation "3+".   https://www.thedailystar.net/frontpage/news/dream-coming-true-bit-bit-1981477
    • 12:00 AM, October 20, 2020 / LAST MODIFIED: 02:48 AM, October 20, 2020 Bangabandhu Shilpa Nagar taking shape defying all odds The industrial city now has $19b investment proposals, which may cross $30b by 2030 Jagaran Chakma Development works, including earth filling, being carried out by various investors at Bangabandhu Sheikh Mujib Shilpa Nagar in Chattogram. Factories of 13 different companies are now under construction in the economic zone and the plants may go into production by next year. Photo: COLLECTED The Bangabandhu Sheikh Mujib Shilpa Nagar (BSMSN) seems to be taking shape day by day as investors have started developing the physical infrastructure of the 30,000-acre economic zone. While visiting the country's future industrial hub last Friday, this correspondent witnessed massive development works, including earth filling, being carried out by various investors. Meanwhile, businesses from home and abroad have come up with investment proposals worth $19 billion for the industrial city, said Paban Chowdhury, executive chairman of Bangladesh Economic Zones Authority (Beza). Of them, foreign companies, including Wilmar of Singapore, Adani Group and Asian Paints of India, Sojitz Corporation of Japan, Nippon Steel of Japan and Yabang Group of China, wanted to invest $10 billion, he said. "The remaining $9 billion proposals came from local businesses. The major investors are: TK Group, Karmo Foam Industries, Mango Teleservices, BDCOM Online, Bashundhara Group, Siraj Cycle Industries, Abdul Monem Group, Star Consortium and Ayesha Clothing Company." Out of the around 200 international and local investment proposals, 76 came from local garment makers, he added. Moreover, three local entities—Confidence Group, Energypac and state-owned Rural Power Company Ltd—have expressed their willingness to invest nearly $3 billion in the power sector, he said. "We hope the total investment in BSMSN will reach $30 billion by 2030, which will be equivalent to the total investment made on all other zones," he added. Even amid the pandemic, the Beza received over $1.5 billion in investment proposals from home and abroad. Factories of 13 different companies, including Asian Paints, McDonald Steel and Modern Synthetic, are now under construction, he said. "These factories may go into production by the next year." Some other factories are currently waiting for the utility connections to start their construction work, he said. Earlier, the World Bank handed over $500 million for the development of the industrial city and the global lender attached a condition that no factory should start construction work before getting utility connections. The Beza executive chairman said they will use underground water sources for the next two and a half years to ensure water supply to the industrial units. The water will be brought to the surface with the help of Chattogram Water Supply and Sewerage Authority, he said. Within the next three months, the entire area of the BSMSN will be desalinised, he said. Local companies want to pour funds into pharmaceutical, chemical, steel, textiles, garments, bicycle, automobile, tire and tube, electronics and ceramic sectors. Both the local and foreign businesses which will invest in the economic zones will enjoy the same facilities, said Chowdhury. Chowdhury went on to say that more proposals are coming in thanks to the growing interest of foreign investors. However, he said the Beza is now declining proposals as it would not be possible to accommodate them all due to a shortage of land in the industrial city. But land will be available when they will start land allotment at the Swandip site on the south bank of the Swandip Channel, he said. At least 1.5 million jobs will be created in the zone and it would become the third largest city in Bangladesh after Dhaka and Chattogram, as around 15 million people will live in the adjoining areas, he said. According to Chowdhury, just five year ago nobody could imagine that this char land would lead to a different Bangladesh by becoming the country's biggest industrial hub. This zone will help Bangladesh materialise its dream to become a high-income nation, he said. Jinyuan Chemical Industry, a Chinese company which exports chemical products to the US and Canada, was to set to be the first company to begin operations inside the BSMSN in March, but the Covid-19 outbreak delayed the process, he said. "I have received all clearances to start operation of the factory," Wang Yang, chairman of Jinyuan Chemical Industry, told The Daily Star ahead of the coronavirus outbreak in March. Yang had shifted her factory from China to Bangladesh in order to lessen the tariff burden while exporting products to North America. "My first aim is to avoid the impacts of the US-China trade conflict and make my products competitive." Yang had invested $6 million in the first phase of the factory, which created jobs for 50 people. "I plan to increase this investment in the future," she added. The BSMSN will be the first public economic zone to go into operation as part of the government's plan to set up 100 industrial enclaves across the country to boost industrialisation, Chowdhury said.    https://www.thedailystar.net/business/news/bangabandhu-shilpa-nagar-taking-shape-defying-all-odds-1981101
  • Our picks

    • Defseca has obtained exclusive photos from the construction site of a Bangladesh Navy submarine base being developed by a Chinese state owned company.

      The $1.22 billion submarine base is the largest ever base building project undertaken by the Chinese outside its own territory.

      It signifies the start of a new strategic partnership between Dhaka and Beijing. A full report is coming soon for members.
        • Thanks
        • Like
      • 18 replies
    • Padma Multi-Purpose Bridge
      • 15 replies
    • Hi !

      I just joined this forum because recently the type 69 II G has been introduced into the video game "war thunder". The thing is, there have been conflicts to know if the vehicle was representated correctly. Depending on the source I can find, it has either a 105mm gun or a 120mm, a thermal imager sight or not etc.

      So I think asking the experts might be a better idea, and here I am

      Excuse me if this isnt the good location or if it's off topic, I'm a bit lost

      Thanks in advance for your anwsers !
      • 8 replies
    • The Bangladesh Ordnance Factories or BOF has started full scale production of 122mm guided and unguided rocket systems at its new facility. BOF is gearing up to manufacture all 120mm, 122mm, 155mm ammunition indigenously. At present it only makes 105mm ammunition with help from China.

      Making such ammunition is integral towards reaching a degree of basic self-sufficiency. Its critical that Bangladesh armed forces be equipped with own line of ammunition for army, navy and air force.

      At a basic stage BOF and BAF should be making:

      Mortar shells (60mm, 81mm, 82mm, 120mm)


      Artillery ammunition (105mm, 122mm, 155mm)


      Naval missiles (C-704)


      Naval mines (NATO/Chinese)


      Naval gunnery munitions (35mm, 37mm, 40mm, 76mm, 76.2mm, 100mm) 


      Aerial bombs (smart and general purpose)


      Air defence gun munitions (12.7mm, 14.5mm, 35mm, 37mm, 40mm, 57mm)  


      MANPADS (FN-16, QW-18)
        • Like
      • 15 replies
    • BSF kills two Bangladeshis

      Our Correspondent, Lalmonirhat
      Two Bangladeshi cattle traders were shot dead allegedly by Indian Border Security Force (BSF) along Hatibandha border in Lalmonirhat yesterday morning.

      Omar Faruq, officer-in-charge of Hatibandha Police Station, said they, along with the members of Border Guard Bangladesh (BGB), recovered the bodies from Bonchauki border in Gotamari upazila.

      The bodies of Suruj Islam, 18, and Suruj Mia, 37, of Amjhola village in the upazila, were sent to Lalmonihat Sadar Hospital morgue for autopsies, our Lalmonirhat correspondent reported.

      Quoting witnesses, Tapas Chandra, commander of Banchauki BGB Camp, said BSF patrol team of Setai camp in Cooch Behar district of India’s West Bengal opened fire on the duo when they were entering Bangladesh with Indian cattle.

      Lt Colonel Tauhidul Alam, commander officer (CO) of Lalmonirhat 15 BGB Battalion, said they sent a letter to BSF protesting the killing of the two Bangladeshis.

      https://www.thedailystar.net/backpage/news/bsf-kills-two-bangladeshis-1857733
      • 35 replies
  • Upcoming Events

    No upcoming events found
×
×
  • Create New...